সন্ত্রাস বিরোধী আইনের মামলায় পলাতক আসামী গ্রেপ্তার

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সিদ্ধিরগঞ্জে সন্ত্রাস বিরোধী আইন মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুর ৩টায় সিদ্ধিরগঞ্জের নিমাই কাশারী এলাকা হতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।


গ্রেপ্তারকৃত আসামী সিদ্ধিরগঞ্জ নিমাই কাশারী এলাকার মৃত তারা মিয়ার ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম (৪৯)।

র‌্যাব-১১ সহকারী পরিচালক (এএসপি) মো. রিজওয়ান সাঈদ জিকু এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, গ্রেপ্তার আসামী তার চক্রের সদস্যদের সহায়তায় ও প্ররোচনায় বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব বিপন্ন ও জন নিরাপত্তা বিঘ্ন করার উদ্দেশ্যে জনসাধারণ বা জন সংগঠনের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টির মাধ্যমে সরকারী কর্মচারীকে ক্ষতি করার উদ্দেশ্যে আঘাত করে জখম ও যানবাহনে অগ্নিসংযোগ করে। মামলা হওয়ার পর থেকে সে গা-ঢাকা দিয়ে কৌশলে বিভিন্ন এলাকায় পালিয়ে বেড়াচ্ছিল। এরই প্রেক্ষিতে গোয়েন্দা নজরদারী ও গোপন অনুসন্ধানের মাধ্যমে র‌্যাব-১১ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল অভিযুক্ত আসামীর অবস্থান সনাক্ত করে নিমাই কাশারী এলাকা হতে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামীকে সংশ্লিষ্ট মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।সন্ত্রাস বিরোধী আইনের মামলায় পলাতক আসামী গ্রেপ্তার

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সিদ্ধিরগঞ্জে সন্ত্রাস বিরোধী আইন মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১। মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুর ৩টায় সিদ্ধিরগঞ্জের নিমাই কাশারী এলাকা হতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী সিদ্ধিরগঞ্জ নিমাই কাশারী এলাকার মৃত তারা মিয়ার ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম (৪৯)।

র‌্যাব-১১ সহকারী পরিচালক (এএসপি) মো. রিজওয়ান সাঈদ জিকু এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, গ্রেপ্তার আসামী তার চক্রের সদস্যদের সহায়তায় ও প্ররোচনায় বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব বিপন্ন ও জন নিরাপত্তা বিঘ্ন করার উদ্দেশ্যে জনসাধারণ বা জন সংগঠনের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টির মাধ্যমে সরকারী কর্মচারীকে ক্ষতি করার উদ্দেশ্যে আঘাত করে জখম ও যানবাহনে অগ্নিসংযোগ করে। মামলা হওয়ার পর থেকে সে গা-ঢাকা দিয়ে কৌশলে বিভিন্ন এলাকায় পালিয়ে বেড়াচ্ছিল। এরই প্রেক্ষিতে গোয়েন্দা নজরদারী ও গোপন অনুসন্ধানের মাধ্যমে র‌্যাব-১১ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল অভিযুক্ত আসামীর অবস্থান সনাক্ত করে নিমাই কাশারী এলাকা হতে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামীকে সংশ্লিষ্ট মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।