সরকার বিএনপিকে ভয় পায়: মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ‘আজকে সরকারের ভীত নড়ে গেছে। সরকার বিএনপিকে ভয় পায়। তারা এখন আন্দোলন সংগ্রাম ও দেশের জনগনকে ভয় পায়। এজন্য তারা এখন উলোট পালট কথা বলে। ধারাবাহিক ভাবে সঠিক কথা তারা বলতে পারে না। মিথ্যার ভ্যাস নিয়ে তারা ক্ষমতায় থাকতে চায়। তারা ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতায় থাকতে চায়।

রবিবার (২২ জানুয়ারি) বিকালে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড সংলগ্ন পাসপোর্ট অফিসের সামনে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি আয়োজিত শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া, আলোচনা এবং শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণের অনুষ্ঠানে, জেলা বিএনপির আহবায়ক ও নারায়ণগঞ্জ ৪-আসনের সাবেক সাংসদ সদস্য মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, তারা মানুষের অধিকার যেভাবে নষ্ট করেছে, তেমনিভাবে তারা এ দেশের মানুষের অর্থ সম্পদ লুন্ঠন করে বিদেশে পাঁচার করে দেশকে দূর্দশাগ্রস্থ অবস্থায় ফেলে দিয়েছে। দেউলিয়া হওয়ার একসমূহ অবস্থানে বাংলাদেশকে তারা ঠেলে দিয়েছে। অথচ তাদের ব্যক্তিগত সম্পদের পাহাড় তারা ইতিমধ্যে গড়েছে। হাজার হাজার কোটি টাকা তারা বিদেশে পাচার করে সম্পদের পাহাড় গড়েছে।

গিয়াসউদ্দিন আরও বলেন, স্বাধীনতার ৫১ বছরে গনতন্ত্রকে হত্যা করা হয়েছে। বিগত দুই নির্বাচনে মানুষ তাদের ভোট ও অধিকার প্রতিষ্ঠিত পারে নাই। বিনা ভোটে যারা ক্ষমতায় তারা আজকে জবর দখল করে আছে। যারা নিজেদেরকে মন্ত্রী ও এমপি ভাবে তারা কেউ নির্বাচিত নয় স্বঘোষিত নেতা। মানুষ যখন লজ্জা হারিয়ে ফেলে তখন মানুষ সববিছু করতে পারে। আজকে এ সরকারের যারা ক্ষমতায় রয়েছে তারা লাজ লজ্জা সমস্ত কিছুকে খেয়ে ফেলেছে। তারা অবৈধভাবে ক্ষমতায় থেকে দাম্ভিকতা নিয়ে কথা বলে। বিএনপিকে কটাক্ষ করে কথা বলে। বিএনপির নাকি সাংগঠনিক শক্তি, কোল সোজা করে দাঁড়াতে ও আন্দোলন সংগ্রাম করতে পারে না। তারা বিভিন্ন প্রকার কথা বলে। দেশকে ১৪ বছরে লুন্ঠন করে যারা আজকে সম্পদের পাহাড় গড়েছে ও দাম্ভিকতা নিয়ে কথা বলে তাদেরকে আজকে বিএনপি দেখাচ্ছে রাজপথে।

তিনি আরও বলেন, আজকে তারা গনতন্ত্র দিতে ভয় পায়। তাদের দলে আজকে যারা আওয়ামীলীগ ও সরকারের সুবিধা ভোগ করে তাদেরও অধিকাংশ মানুষ তাদেরকে দেখতে পারে না। বাজারে গেলে বলে আমরা সরকারি লোক তখন তাদের সম্মান দেয় না। কারণ মানুষ বলে তাদের চোরের দলের মানুষ। চোরের দলের মানুষ যখন বলে তখন তারা লজ্জিত হয়। এ লজ্জা থেকে বাঁচার জন্য তারা মনে মনে দোয়া করে সরকারের পতন ঘটুক। অন্য একটা সরকার আসুক সেই সরকারকে দাঁড় করিয়ে আমরা যেনো মাথা উচু করে দাঁড়াতে পারি।

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহবায়ক ও সাবেক সাংসদ সদস্য মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিনের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক শহীদুল ইসলাম টিটুর সঞ্চালনায় এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক লুৎফুর রহমান খোকা, মাশুকুল ইসলাম রাজিব, ফতুল্লা থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক খন্দকার মনিরুল ইসলাম, জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মশিউর রহমান রনি, জেলা শ্রমিকদলের সভাপতি মন্টু মেম্বার, জেলা কৃষকদলের আহবায়ক শাহীন মিয়া, সদস্য সচিব জি,এম, কায়সার রিফাত, জেলা মহিলা দলের সভানেত্রী রহিমা শরীফ মায়া, জেলা বিএনপির সাবেক প্রচার সম্পাদক রিয়াদ মো. চৌধূরি, বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট বারি ভূইয়া, নাসিক ২নং ওর্য়াড কাউন্সিলর মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন, যুবদল নেতা শহীদুল ইসলাম স্বপনসহ জেলা বিএনপির আওতাধীন বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।