সিলেটে গিয়ে লাশ হলেন না.গঞ্জের মোরশেদ, স্ত্রী ও ভাই লাপাত্তা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সিলেটে একটি আবাসিক হোটেল থেকে মোরশেদের (৪৭) নামের এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরে খোজ নিয়ে জানা গেছে ওই ব্যক্তি নারায়ণগঞ্জের সোনারাগঁ উপজেলার বাসিন্দা।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) বিকেলে সিলেট নগরীর দরগাহ গেট এলাকার জমজম আবাসিক হোটেলের একটি কক্ষ থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হোটেলের ম্যানেজারকে আটক করেছে পুলিশ।

মোরশেদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও থানার সেনপাড়া গ্রামের মাকু মিয়ার ছেলে।

পুলিশ জানায়, রোববার (২৮ নভেম্বর) রাত ১১টার দিকে মোরশেদ, তার স্ত্রী সাথী আক্তার (৩০) ও ছোট ভাই বাবু মিয়া (২৯) জমজম হোটেলের ৩য় তলার একটি ডাবল ও একটি সিঙ্গেল রুম ভাড়া নেন। তারা হযরত শাহজালালের মাজার জিয়ারত করার উদ্দেশে সিলেটে এসেছেন বলে হোটেল কর্তৃপক্ষকে জানান।

সোমবার সকাল ১১টার দিকে হোটেলের এক কর্মচারী নিয়মিত রুম সার্ভিসের জন্য ৩য় তলায় গিয়ে দেখতে পান, ডাবল রুমের খাটের উপর মোরশেদের নিথর দেহ পড়ে আছে। পরে হোটেল কর্তৃপক্ষ পুলিশে খবর দিলে শাহজালাল (র.) তদন্তকেন্দ্রের এসআই আবু সাঈদের নেতৃত্বে সোমবার বিকালে একদল পুলিশ গিয়ে মোরশেদের মরদেহ উদ্ধার করে।

কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আলী মাহমুদ জানান, মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মৃতদেহে কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। হোটেলের ম্যানেজারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে ওই ব্যক্তির স্ত্রী ও ছোট ভাই লাপাত্তা। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।