সিলেট ও সুনামগঞ্জে ১২ লাখ টাকার ত্রাণ সামগ্রী পাঠালো না:গঞ্জ খেলাফত মজলিস

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: খেলাফত মজলিস নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে সিলেট ও সুনামগঞ্জের বানভাসি অসহায় মানুষের জন্য নারায়ণগঞ্জবাসীর পক্ষ থেকে উপহার হিসাবে প্রায় ৬ লক্ষ টাকার খাদ্য সামগ্রী বোঝাই করা ২য় ট্রাক পাঠানো হয়েছে। এ উপলক্ষে নগরীর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দান সংলগ্ন জেলা ও মহানগর কার্যালয় প্রাঙ্গনে এক দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি এবিএম সিরাজুল মামুন-এর তত্বাবধানে ত্রাণ সামগ্রী প্রেরণের সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর সভাপতি ডাঃ শরীফ মোহাম্মদ মোসাদ্দেক, জেলা সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মাওলানা আহমদ আলী, মহানগর সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস আহমদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক খন্দকার হাফেজ মুহাম্মাদ আওলাদ, মুফতী আব্দুল গনী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতী শেখ শাব্বীর আহমাদ, প্রশিক্ষণ সম্পাদক খন্দকার মুহাম্মাদ ইউনুস, জেলা দফতর ও প্রচার সম্পাদক মুহাম্মদ শরীফ মিয়া, মহানগর বায়তুলমাল সম্পাদক মাইদুল ইসলাম, প্রকাশনা সম্পাদক সৈয়দ আরিফুজ্জামান, সোনারগাঁ থানা সহ-সাধারণ সম্পাদক মুফতী নুর মোহাম্মদ, এনায়েতনগর ইউনিয়ন পূর্ব সভাপতি আব্দুল করীম মিন্টু, মাস্টার শরীফ মুহাম্মাদ ইউসুফ প্রমুখ।

খেলাফত মজলিস নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি এবিএম সিরাজুল মামুন বলেন, আমাদের সংগঠনের অন্যতম একটি কর্মসূচি হচ্ছে মানবসেবা। সকল দুর্যোগের সময় খেলাফত মজলিস এগিয়ে এসেছে। এবারের বন্যা কবলিত এলাকায় আমাদের এই কর্মসূচী সফল করার জন্য নারায়ণগঞ্জের সর্বস্তরের সাধারন মানুষ, বিভিন্ন পেশাজীবি, আলেম-উলামা, ছাত্র, গৃহিনী, শ্রমিকবৃন্দ ও প্রবাসীগণ স্বতস্ফুর্তভাবে সহযোগিতা করেছেন। সকলের প্রতি আমরা আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

তিনি বলেন, ২য় পর্যায়ে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মোট ৮০০ পরিবারের জন্য মোট ৬ লক্ষ টাকা মূল্যের মোট ৯ টন (৯,০০০ কেজি) খাদ্য সামগ্রীর প্রেরণ করা হয়। এবারের আইটেম হলো চাল, ডাল, পেঁয়াজ, তেল, আলু ও লবণ। আমরা ইতিপূর্বে ১ম পর্যায়ে খেলাফত মজলিস নারায়ণগঞ্জ মহানগরীর পক্ষ থেকে ১,০০০ পরিবারের জন্য চিড়া, গুড়, গ্যাসলাইট, মোমবাতি, বিস্কুট সহ প্রায় ৫ লক্ষ টাকার খাদ্য সামগ্রী সিলেট, সুনামগঞ্জে পাঠিয়েছি। এর পূর্বে প্রায় ২ লক্ষ ত্রিশ হাজার নগদ টাকা সিলেটের ত্রাণ তহবিলে পাঠানো হয়।

মোট সাড়ে বারো লক্ষ টাকা নারায়ণগঞ্জ থেকে এই তহবিলে খরচ করা হয়েছে। ১২ লাখ টাকার ত্রাণই নয় প্রয়োজনে আরো মানবিক সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে জানান খেলাফত মজলিসের নেতৃবৃন্দ।

মহানগর সভাপতি ডাঃ শরীফ মোহাম্মদ মোসাদ্দেক বলেন, বন্যাদূর্গত অসহায় মানুষদের জন্য খেলাফত মজলিসের এই ত্রাণ কর্মসূচী অব্যহত থাকবে। এ সপ্তাহের শেষের দিকে কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধাসহ উত্তরবঙ্গের অন্যান্য বন্যাদূর্গত এলাকার জন্য জরুরী খাদ্য সহায়তার ৩য় চালানটি পাঠানো হবে ইনশাআল্লাহ। নেতৃবৃন্দ সবাইকে যার যার সামর্থের আলোকে আল্লাহর সন্তুষ্টি এবং পরকালীন মুক্তির আশায় সর্বোচ্চ কোরবানীর মাধ্যমে এই মহান কাজে শরীক থাকার আহ্বান জানান।