স্বপ্ন দেখছি বলেই জনপ্রতিনিধি হতে পেরেছি: আনোয়ার হোসেন

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেছেন, আমি যত দিন বেঁচে থাকবো মানুষের কল্যাণে কাজ করবো। কারণ মানুষকে ভালোবাসলে আল্লাহকে ভালোবাসা যায়। এই পৃথিবীর পর আরও এক জনম রয়েছে যে জনমে চিরদিন থাকতে হবে আমি মুসলিম হিসেবে সেটা বিশ্বাস করি এবং সে বিশ্বাস নিয়েই আমি আজকের দুনিয়ায় কাজ-কর্ম করে যাচ্ছি।


সোমবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে মর্গ্যান গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ও গভনিং বডির সভাপতির বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন।

তিনি বলেন, এই স্কুলকে নিয়ে আমার অনেক স্বপ্ন। আমি এই স্কুলকে মায়ের মতো ভালোবাসি। ছাত্রীদের সন্তানের মতো স্নেহ করি। স্কুলের শিক্ষকদের আমি অনেক শ্রদ্ধা করি। যে ব্যক্তির ভিতরে লেখাপড়ার গুণ নাই সে ব্যক্তি জীবনে বড় হতে পারে না।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, তোমরা এক সময় ছোট ছিলে, মায়ের গর্ভে ছিলে। মা তোমাদের স্নেহ মায়া মমতা দিয়ে বড় করেছে। সেই মায়ের প্রতি কখনো অশ্রদ্ধাশীল হইয়ো না। মা বাবা তোমাদের নিয়ে অনেক স্বপ্ন দেখে। যে ব্যক্তি মা-বাবার প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকতে পারে না সে কোনদিন বড় হতে পারে না। সে সাময়িকভাবে সুখি হলেও পরবর্তীতে সুখি হতে পারবে না। বাপ মা যদি সন্তানের থেকে আঘাতপ্রাপ্ত হয় সে আঘাত আল্লাহর আরশ পর্যন্ত কেঁপে যায়। জীবনে যত বড়ই হও বাপ মার প্রতি, শিক্ষকদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হও। তাহলেই জীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে পারবে।

আনোয়ার হোসেন বলেন, স্বপ্ন দেখা ছাড়া কোন দিন বড় হতে পারবে না। আমি স্বপ্ন দেখছি। স্বপ্ন দেখছি বলেই অনেক বছর পর আমি জনপ্রতিনিধি হতে পেরেছি। স্বপ্ন যদি না দেখতাম, হতাশ হয়ে যদি আমি বাসায় চলে যেতাম তাহলে আমি আজ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হতে পারতাম না। তোমরা স্বপ্ন দেখো। একজন ভালো ইঞ্জিনিয়ার, ডাক্তার, রাজনীতিবিদ হওয়ার স্বপ্ন দেখো। স্বপ্ন দেখো মানুষের পাশে দাঁড়ানোর। মানুষের কল্যাণে কাজ করার স্বপ্ন দেখো।

তিনি বলেন, তোমাদের সবাইকে বিদায়ের শুভেচ্ছা জানাই। সবার প্রতি আমার দোয়া রইলো। আমিও তোমাদের কাছে দোয়া প্রার্থী এই কারণে আল্লাহ যেন আমাকে দীর্ঘজীবী করেন। আমি যাতে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে পারি। মানুষের সেবায় আত্মজীবি করতে পারি। মানুষের সেবার মধ্য দিয়েই আমি যাতে এই পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নিতে পারি।’

মর্গ্যান গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে ও শিক্ষক কবির ইউ চৌধুরির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সদস্য ও মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আহসান হাবীব, সাবেক সদস্য হুমায়ূন কবির, বর্তমান সদস্য মোশারফ হোসেন জনি, প্রতিষ্ঠানের সহকারী প্রধান শিক্ষক লায়লা আক্তার প্রমুখ।