সড়‌কে দেয়াল নির্মা‌নে‌র অ‌ভি‌যোগ সা‌বেক মেম্বা‌রের বিরু‌দ্ধে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলার আলীরটেক ইউনিয়নে সড়কের মধ্যে দেয়াল নির্মানের অভিযোগ উঠেছে ওই ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার ইকবাল মাহমুদের বিরুদ্ধে। শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে আলীরটেক ইউনিয়নের বর্তমান মেম্বাররা এই অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি উপস্থাপন করেন আলীরটেক ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড মেম্বার ও প্যানেল চেয়ারম্যান শাহিন রাজু।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- আলীরটেক ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড মেম্বার জাকির হোসেন, ২নং ওয়ার্ড মেম্বার ওসমান গণি, ৩ নং ওয়ার্ড মেম্বার সোহেল মিয়া, ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার রওশন আলী, ৫নং ওয়ার্ড মেম্বার আব্দুর মান্নান, ৬নং ওয়ার্ড মেম্বার ফিরোজ মিয়া, ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার আব্দুল ওহাব ও ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার মোক্তার হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ‘২০১৩ সালে ৯নং ওয়ার্ডে মুক্তারকান্দি হতে আলীরটেক মহিলা মাদ্রাসা এবং পর্যন্ত ২০ ফুট প্রসস্ত এবং ৩ হাজার ৫০০ ফুট দৈর্ঘের একটি সড়ক নির্মাণ করা হয়। তবে তৎকালিন উক্ত সড়কটি নির্মানের জন্য সরকারি জমি না থাকায়, ওই ওয়ার্ডের সকলের সম্মতি ক্রমে ব্যক্তি মালিকানাধীন জমির উপর সড়কটি নির্মান করা হয়। ওই সময় সড়কের যায়গা নির্ধারিত রাখার জন্য দু পাশে প্রায় দশ হাজার গাছও লাগানো হয়। পরবর্তিতে ২০২০ সালে তৎকালিন মেম্বার ইকবাল হোসেন সড়কের পাশে সাড়ে তিন ফুট জমি দখল করে তার বাড়ি নির্মাণ করেন।’

তবে, ‘সম্প্রতি ওই সড়কটির আরসিসি ঢালায়ের কাজ হাতে নেয় ইউনিয়ন পরিষদ। এ সময় বর্তমান স্থানীয় মেম্বার ইকবাল হোসেনকে সড়কের জমি ছেড়ে দিতে বললে সে অসম্মতি জানান। আমরা তার কাছে এ বিষয়ে অনেকবার অনুরোধ করলে সে আমাদের বিরুদ্ধে নানান উল্টাপাল্টা মন্তব্য করা শুরু করে।’

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, আগে ওই স্থানটিতে কেউ থাকতো না। পরে যখন আমাদের চেয়ারম্যান জাকির সাহেব রাস্তাটি করলো তখন আশে পাশে মানুষ বাড়ি ঘর নির্মান করাও শুরু করলো। ওই ওয়ার্ডে একটি কবরস্থান আছে, সেখানে আগে লাশ দাফন করতে মানুষে অনেক অসুবিধা হতো, কারন রাস্তাটি ছিলো নষ্ট। এখন মানুষ সুন্দর ভাবে দাফন কাফন করতে পারে। শুধু তাই নয়, এই রাস্তাটি দিয়ে আলীরটেক ইউনিয়নের অধিকাংশ মানুষের যাতায়াত।

বক্তারা আরও বলেন, আমরা আমাদের ইউনিয়নে মানুষের কষ্ট দুর করতেই আমরা ওই রাস্তাটা নির্মান করেছি। এখন মানুষের উপকার করতে গিয়ে যদি আমাদের এরকম পরিস্থিতিতে পরতে হয় তাহলে কার কাছে বলবো। আমাদের এলাকায় এখনো শহরের মতো ততটা উন্নয়নে ছোয়া লাগেনি, কারণ আমাদের ইউনিয়নের যোগাযোগ ব্যবস্থা দুর্বল। আমাদের চেয়ারম্যান জাকির সাহেব আমাদের ওয়ার্ডকে উন্নত করার লক্ষেই যোগাযোগ ব্যবস্থা তৈরি করছে। আর আমাদের সংবিধানেও আছে যে, জনগনের সার্থে ব্যক্তি মালিকানাধীন জমির উপরও রাস্তা নির্মান করা যাবে।