হিন্দু বন্ধুর পাশে দাড়ালো মুসলিম বন্ধু

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নেট দুনিয়ায় এ সময়ের একটি আলোচিত ইস্যু হিন্দু মন্দিরে হামলা। বিভিন্ন ভাবে স্বধর্মী ও ভিন্নধর্মের মানুষ এর প্রতিবাদ জানিয়েছে। এমনি একটি পোষ্টে নারায়ণগঞ্জে হিন্দু ধর্মালম্বী এক কলেজ ছাত্রী কমেন্টে করেছে ‘এ দেশ হিন্দু মুসলিম সবাই মিলেই স্বাধীন করেছে’। তার সেই কমেন্টের জের ধরে ৩যুবক ওই ছাত্রীকে রাতভর ধর্ষণ করার হুমকি দিয়েছেন। এতে বিব্রত হয়েছেন ওই ছাত্রী, পরে ব্যাপারটি তার এক মুসলিম বন্ধু জানার পর সাথে সাথে প্রশাসকে অবহিত করে।


জানা যায়, হুমকি দেয়া যুবক মুন্সিগঞ্জের বাসিন্দা। তারা স্কুল এবং কলেজের ছাত্র। ইতিমধ্যে মুন্সিগঞ্জের পুলিশ সুপার ওই ভুক্তভোগী কলেজ ছাত্রীর কাছ থেকে অভিযুক্তদের তথ্য নিয়েছেন।

হিন্দু কলেজ ছাত্রীর মুসলিম বন্ধুর সাথে কথা বললে তিনি জানায়, ফেসবুকে একটি ভিডিওতে আমার বন্ধু কমেন্ট করেছিলো। এ কমেন্টের জের ধরে তিন জন মুন্সীগঞ্জের ছেলে ফেসবুক কমেন্টে আমার বন্ধুকে রাতভর ধর্ষন করবে বলে হুমকি দেয়। পরে আমাকে বিষয়টি জানালে, আমি ওই ছেলেদের ফেসবুক আইডি সংগ্রহ করে তাদের বোঝানোর চেষ্টা করি। তাদেরকে বলেছি আমাদের ধর্মের কোথায় আছে এ ধরণের হুমকি দেয়ার?। তারা পাল্টা একটি কথাই বলে, ধর্ম বুঝি না ওকে দেখে নেব। সেই ভয়েস রেকডিং আমার কাছে সংরক্ষিত আছে।

তিনি আরও জানায়, আমি এই বিষয়ে এক ঈমামের সাথে কথা বলেছি, তিনি আমাকে বলেছে, এটা চরম অপরাধ। এরা মুসলমান নামের কলঙ্ক। এরা আামাদের ধর্মকে কলঙ্কিত করছে।

হিন্দু কলেজ শিক্ষার্থী জানান, আমার দোষ এতটুকুই আমি শুধু একটি ভিডিওতে কমেন্টে করেছিলাম ‘এ দেশ হিন্দু মুসলিম সবাই মিলেমিশে স্বাধীন করেছে’। তাদের বাজে কমেন্টের পর খুব আতঙ্কে ছিলাম। কিন্তু ঠিক সময়ে আমার মুসলিম বন্ধু আমার পাশে দাড়িঁয়েছে। মুন্সিগঞ্জের পুলিশ আমাকে ফোন দিয়ে ওই ছেলেদের তথ্য নিয়েছে।

মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব জানান, আমরা এই বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নিবো। অভিযুক্তদের চিহ্নিত করার চেষ্ঠা অব্যহত আছে।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) জায়েদুল আলম জানান, এ বিষয়টির সম্পের্কে আমি অবগত। মুসলমান ধর্মের কোথাও নেই এভাবে হুমকি দেয়ার। তবে একজন হিন্দুর পাশে একজন মুসলিম দাড়িঁয়েছে, এটা অনুপ্রেরণা মূলক। তরুণদের মধ্যে থেকে এভাবেই অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র কায়েম করা সম্ভব। আমরা মেয়েটির নিরাপত্তার দিকে নজর রাখছি।

0