২ টাকার ভাড়া নিয়ে যাত্রী-ইজারাদারের মারামারি, ট্রলার বন্ধ থাকায় দুর্ভোগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: যাত্রীর সাথে দুই টাকার ভাড়া নিয়ে ইজারাদারের লোকজনের কথা কাটাকাটি; এক পর্যায়ে সেই ঝগড়া মারামারিতে পরিনত হয়েছে। এতে ইজারাদার ট্রলার বন্ধ করে দেওয়ায় দুর্ভোগে পড়েছে হাজার হাজার যাত্রী।

নারায়ণগঞ্জ সেন্টাল খেয়াঘাটে মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) সকালে এই ঘটনা ঘটেছে। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মকবুল মাঝি নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে নৌ-থানা পুলিশ।

আটককৃত ব্যক্তি সে চাঁদপুরের বাসিন্দা, বন্দরের কদমরসূল অঞ্চলে বসবাস করেন।

সকালে শীতলক্ষ্যা নদীর নারায়ণগঞ্জের সেন্ট্রাল খেয়াঘাটে ট্রলার চলাচল বন্ধ ছিল বলে জানান দুর্ভোগের শিকার যাত্রী রুহুল আমিন। এতে নৌকায় অতিরিক্ত মানুষ উঠে ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হয়েছি। ট্রলার বন্ধ থাকায় মারামারির ঘটনা দ্রুত ছড়িয়ে পরে। আহত হন বেশ কয়েকজন। এরপর নারায়ণগঞ্জ নৌ-থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মিজানুর রহমান।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জের সেন্ট্রাল খেয়াঘাটে যাত্রী প্রতি ভাড়া ২ টাকা করে। মকবুল মাঝিসহ ৩ জন যাত্রী বন্দর থেকে নারায়ণগঞ্জে এসেছেন। কিন্তু ভাড়া দিয়েছে ২ জনের। ইজারাদারের লোকজন ‘কত জন তারা’ জানতে চান, কিন্তু উত্তর দেয়নি। এতে ঘাটের টাকা উত্তলনকারীরা বলেন, বোবা নাকি। এ নিয়েই কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে যাত্রী চলে আসেন। কিছুক্ষণ পর লোকজন নিয়ে ইজারাদারের লোকজনদের উপর হামলা করেন।

নারায়ণগঞ্জ নৌ-থানা পুলিশ পরির্দশক মনিরুজ্জামান জানান, মারামারির খবর শুনে দ্রুত গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করা হয়েছে। একই সাথে এক জনকে আটক করে সদর মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি) আনিচুর রহমান জানান, এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। অভিযোগটি আমলে নেওয়া হয়েছে ও একজনকে আটক করা হয়েছে।